আমরা প্রমান করেছি বিএনপি সহিংসতা করেনা-ঠাকুরগাঁওয়ে মির্জা ফখরুল

লেখক: নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: ৮ মাস আগে

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আগে বলা হতো এবং হাসিনা সরকারের লোকেরা এখনও বলে আমরা ভায়োলেন্স করি-সহিংসতা করি। গত কয়েক বছরে আমরা প্রমান করেছি আমরা সহিংসতা করিনা। আমরা সহিংসতায় বিশ্বাসী না। সহিংসতা তারাই করে পরে আমাদের ওপরে দোষ চাপানোর চেষ্টা করে।

শুক্রবার সকালে ঠাকুরগাঁওয়ের কালীবাড়িস্থ নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় কালে তিনি এসব কথা বলেন।

আন্দোলন নিয়ে মির্জা আলমগীর বলেন, এটা ইতিমধ্যে প্রমানিত যে বিএনপি কিভাবে আন্দোলন করতে পারে। আন্দোলন কোন ছক কাটা জিনিস না। এটাতে জনগণের সম্পৃক্ততার সাথে সাথে দেশের রাজনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে সামগ্রিকভাবে সে আন্দোলন দানা বাঁধে। ইতিমধ্যেই এ সরকারের যত অপকর্ম, দুশাসন, দুর্ণিতি এমন একটা পর্যায়ে চলে গেছে যে মানুষ আর এ সরকারকে দেখতে চায়না। এ সরকার আর সরকারের লোকেরাই আজ দেশে একটা বড় রাজনৈতিক সংকট তৈরী করে রেখেছে।

সরকার প্রধান ও রাজনৈতিক দলগুলি নিয়ে তিনি বলেন, আমাদের বক্তব্য খুব স্পষ্ট। হাসিনা সরকারের অধিনে আমরা কোন ধরনের নির্বাচনে অংশ নেবো না। আমরা একটা সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য সকল রাজনৈতিক দল গুলির সাথে কথা বলছি ,যারা আমাদের সাথে আসতে চান । জামাতকে তারাই অবৈধ ঘোষণা করে আবার তারাই সুযোগ করে দেয় সমাবেশ সহ নানা কর্মসূচীর। দেশের মানুষ বুঝতে পারে তারা কি রাজনীতির অনুশীলন করে।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি নিজেদের জন্য নয় জনগণের মৌলিক অধিকারের জন্যই আন্দোলন করছে। জনগণের ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়া,সাংবাদিকদের লেখার স্বাধীনতা, জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা ও দলীয় কোন সরকারের অধীনে নির্বাচন নয় এসব বিষয় নিয়েই আমাদের আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচন করতে নিরপেক্ষ সরকার দরকার। এই সব অধিকার আদায়ে কাজ করছে বিএনপি। গোটা পৃথিবী আজ বাংলাদেশের আন্দোলনকে সমর্থন করছে।

কর্মসূচী বিষয়ে তিনি বলেন, কর্মসূচী চলছে আমাদের । আগেও কর্মসূচী দিয়েছি আবারো নতুন কর্মসূচী আসবে। এবােেরর কর্মসূচীর ধরন কিছুটা আলাদা হবে। স্বাভাবিকভাবেই দিন দিন আমাদের জনসম্পৃক্ততা বাড়ছে।

অর্থনৈতিক জোট ব্রিকসে সরকারের যোগ দেয়ার প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ব্রিকসেই যাক আর আইএমএফ এ যাক, হাসিনা সরকার কখনোই সফল হতে পারবে না যতক্ষণ না পর্যন্ত সরকার দুর্নীতি রোধ করতে পারবে। আর এটা স্পষ্ট যে তারা দুর্নীতিতে এতটাই নিমজ্জিত হয়েছে যে সেখান থেকে তাদের বের হবার কোন পথ নেই।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমিন সহ দলের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

ডেস্ক/বিডি

  • বিএনপি সহিংসতা করেনা
  •    

    কপি করলে খবর আছে