ঈদে ৯ দিনের ছুটির ফাঁদে দেশ

লেখক: বাংলা২৪ ভয়েস ডেস্ক
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

গত দুই বছর ধরে বৈশ্বিক মহামারি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করেছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে চারটি ঈদ কেটেছে করোনা আতঙ্কে, নিরানন্দে। দুই বছর পর প্রায় করোনামুক্ত পরিবেশে ঈদ উদযাপন করবে দেশ। তাই এবার বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস করাটা স্বাভাবিক। এবার আসন্ন ঈদুল ফিতর ঘিরে প্রায় ৯ দিনের লম্বা ছুটির ফাঁদে পড়তে যাচ্ছে দেশ।

হিসাব অনুযায়ী- ২৮ এপ্রিল হবে শেষ অফিস। ওইদিন বৃহস্পতিবার। পরদিন ২৯ ও ৩০ এপ্রিল শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। ১ মে রবিবার। মে দিবসের ছুটি। তারপর ২ থেকে ৪ মে (সোম-বুধ) ঈদের ছুটি। তার একদিন পরই আবার সাপ্তাহিক ছুটি শুক্র ও শনিবার। মাঝখানে শুধু একদিন ৫ মে (বৃহস্পতিবার) কর্মদিবস। এদিন ছুটি ঘোষণা করা হলে টানা ৯ দিনের ছুটির ফাঁদে পড়বে দেশ।

সারা মাস পবিত্র রমজানের রোজা শেষে প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে নাড়ির টানে গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছেন মানুষ।

অনেকে ঈদের বাড়ি ফেরার টিকিট বা বিকল্প ব্যবস্থাও করে রাখছেন। অপরদিকে মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে বাড়ি ফিরতে পারেন সে ব্যাপারেও প্রশাসন থেকে শুরু করে সবপর্যায়ে আগাম প্রস্তুতি নেয়া শুরু হয়েছে। মানুষ যেনো নির্বিঘ্নে বাড়িতে ফিরে প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারে সেজন্যে সরকার নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।

এবার ঈদের ছুটি আগে শুরু হওয়ায় ঘরমুখো মানুষকে ঝামেলামুক্তভাবে গন্তব্যে ফেরানোর আশা প্রকাশ করছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা। সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে হানিফ পরিবহণের একটি কাউন্টারের কর্মী শফিক বলেন, এবার ঈদে লম্বা ছুটি হবে। তাই অনেকে আগেই পরিবারের সদস্যদের গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দিচ্ছেন। অনেকে ২০ রোজার পর পাঠানোর জন্য কথা বলে রেখেছেন। আশা করি, এবার আগে থেকেই ঈদের ছুটি শুরু হতে যাওয়ায় যাত্রীদের ঝামেলা পোহাতে হবে না। তাদের নির্বিঘ্নে গন্তব্যে পৌঁছানো সম্ভব হবে।

ডেস্ক/বিডি