কারাম উৎসবে মাদলের তালে মাতোয়ারা নৃ-জনগোষ্ঠীর নারী-পুরুষেরা

লেখক: নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: ৫ মাস আগে

ঠাকুরগাঁওয়ে আনন্দঘন পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে ক্ষুদ্র নৃ-জনগোষ্ঠীর সবচেয়ে বড় ধর্মীয় কারাম উৎসব। উৎসবকে ঘিরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর আত্মীয়স্বজন ছাড়াও ঢোল-মাদলের বাদ্য, গান ও নাচ দেখতে আশপাশের কয়েকটি গ্রামের সব সম্প্রদায়ের মানুষ উপস্থিত হন এক উঠানে।
আনন্দঘন পরিবেশে শনিবার সদর উপজেলার পাঁচপীরডাঙ্গা গ্রামে অনুষ্ঠিত হয় নৃ-গোষ্ঠীর ঐতিহ্যবাহী কারাম উৎসব। ঢোল-মাদল আর গানের ছন্দে নৃত্যের তালে মাতেন সবাই।
জানা গেছে, দিনব্যাপী নানা আয়োজন শেষে সন্ধ্যা থেকে বাড়ির আঙিনায় ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা পালন করেন তারা। পরে নিজস্ব সংস্কৃতির গান আর বাদ্যের তালে তালে নারীরা নেচে-গেয়ে আনন্দ ভাগাভাগি করেন।এর আগে আমন্ত্রিত অতিথিদের নৃত্য ও গানে গানে বরণ করে নেন তারা। নিজেদের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি ধরে রাখতে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতার দাবি তাদের।
জাতীয় আদিবাসী পরিষদের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট ইমরান হোসেন চৌধুরী জানান, এই উৎসব পালন জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি দিতে হবে। এ ছাড়া সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা দিতে হবে। তাহলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীগুলো তাদের ঐতিহ্যকে আরও জাঁকজমকভাবে তুলে ধরতে পারবে।
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু তাহের মো. সামসুজ্জামান ও উপজেলা চেয়ারম্যান অরুনাংশু দত্ত টিটো জানান, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীগুলো নানা সমস্যায় থাকে, সেই সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে তাদের সহায়তা করা হবে। তাদের জীবনমান উন্নয়নে উপজেলা প্রশাসন তাদের পাশে থাকবে সবসময়।
জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমান জানান, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর এ উৎসব আরও জাঁকজমক করতে সব রকম সহযোগিতা করা হবে।
প্রসঙ্গত, এক যুগের বেশি সময় ধরে এ কারাম উৎসব পালন করে আসছেন জেলার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর লোকজন। আর এ উৎসব ঘিরে পাঁচপীরডাঙ্গা, সালন্দর, জামুরীপাড়া, তেলিপাড়াসহ আশপাশের কয়েকটি গ্রামের মানুষ মিলিত হন।
বিডি/জেডবি