কৃষিতে উচ্চ ডিগ্রী নিয়ে চাকরী না করে কৃষিকে পেশা করতে চেয়েছিলো রবিউল, কিন্তু…..

লেখক: মাগুরা থেকে...
প্রকাশ: ৮ মাস আগে

রাতের আঁধারে মাগুরায় ৫০০ গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।সদর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামে ডিগ্রিধারী কৃষক রবিউল ইসলামের কলা বাগানের কলা চুরি করে বিক্রি করা অভিযুক্ত কলা চোরকে জরিমানা করায় রাতের আঁধারে এই কৃষকের গাছ কেটে দেওয়া হয়।

ওই গ্রামের লেলিন, প্রান্তসহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে গাছ কেটে দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন এই কৃষক।

রবিউল ইসলাম জানান, নিজ বাড়ি থেকে দূরে হওয়ায় রুবেল নামে এক কৃষকের কাছে তিনি ৬০ শতক জমি লিজ দেন। দুই বছর আগে ওই জমির চারপাশে ২৫০টি মেহগনি চারা রোপণ করেন। লিজ গ্রহীতা কৃষক রবিউল জমিতে কলা ও পেঁপে গাছ রোপণ করেন। বৃহস্পতিবার রুবেলের অবর্তমানে ওই জমি থেকে কলা চুরি করে বেচে দেন ওই গ্রামের তাছলিমুর রহমান লেলিন নামে এক যুবক। এ ঘটনা জানাজানি হয়ে গেলে গ্রামের বিচারের মাধ্যমে লেলিনকে কলা বিক্রির ৮০০ টাকা ফেরত দেওয়ার রায় হয়। লেলিন তার ভাগনে প্রান্তকে নিয়ে সোমবার সন্ধ্যায় জরিমানার টাকা থেকে ৫০০ টাকা পরিশোধ করেন। কিন্তু এ সময় লেলিন রবিউলকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন।

তার অভিযোগ, চুরি ধরে ফেলা ও জরিমানা দিতে বাধ্য হওয়ায় প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে রাতে কোনও একসময় লেলিন তার সঙ্গীদের নিয়ে ওই জমিতে গিয়ে চারপাশে লাগানো প্রায় ২৫০টি মেহগনি গাছ ও ২৫০টি কলা গাছ কেটে ফেলেছে। এর মধ্যে অনেক কলাগাছেই ফল ছিল।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে রবিউল বলেন, কৃষি বিষয়ে উচ্চ ডিগ্রি নিয়ে চাকরিতে না গিয়ে বাড়িতে এসেছিলাম কৃষিকে পেশা হিসেবে গড়তে। কিন্তু এ ধরনের শত্রুতায় সে আশা ক্রমেই ক্ষীণ হয়ে আসছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করছি।

খবর পেয়ে মাগুরা সদর থানা থেকে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সদর থানার এসআই সফিকুল ইসলাম জানান, সরেজমিনে তদন্ত শেষে বিস্তারিত জেনে এ ঘটনার আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে এখনও কাউকে আটক করা হয়নি। অভিযুক্ত লেলিন পলাতক আছেন।

বিডি/ডেস্ক