ঠাকুরগাঁও সুগার মিলের ৬৫তম আখ মাড়াই কার্যক্রমের উদ্বোধন

লেখক: নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: ১ মাস আগে

ঠাকুরগাঁওয়ের একমাত্র ভারী শিল্প প্রতিষ্ঠান ঠাকুরগাঁও সুগার মিলের ৬৫তম আখ মাড়াই কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন হয়েছে।
শুক্রবার (২৩ ডিসেম্বর) বিকাল ৫টায় ডোঙ্গায় আখ নিক্ষেপের মধ্য দিয়ে মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের ইক্ষু উন্নয়ন ও গবেষণা (গ্রেড২) পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ আশরাফ আলী।
ঠাকুরগাঁও সুগার মিলস লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শাহজাহান কবির এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের উৎপাদন ও প্রকৌশল এর পরিচালক আশরাফ আলী, সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবীর, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামাল হোসেন, ঠাকুরগাঁও সুগারমিল শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি উজ্জল হোসেন, কেন্দ্রীয় আখচাষী সমিতির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, জেলা পরিষদের সংরক্ষিত-১ আসনের সদস্য আফসানা আখতার প্রমুখ।

(বক্তব্য রাখছেন বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের ইক্ষু উন্নয়ন ও গবেষণা পরিচালক কৃষিবিদ মো: আশরাফ আলী)


এসময় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাব সভাপতি মনসুর আলী, সুগারমিলের মহাব্যবস্থাপক (কৃষি) আবু রায়হান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা সুভাষ সিংহ রায়, পরিবহন প্রকৌশলী আবু হাসনাত হাবীব,ঠাকুরগাঁও সুগারমিল শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এনায়েত আলী উলুব্বীসহ মিলের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধনের আগে মিলের উন্নয়নসহ দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। মোনাজাত ও দোয়া পড়ান ঠাকুরগাঁও ইসলামনগর (খানকা শরীফ) এর পীর আব্দুল্লাহ আহাম্মদ উলুব্বী।

মিল কর্তৃপক্ষের তথ্য মতে, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড় ও দিনাজপুর জেলায় প্রায় সাড়ে ৪ হাজার একর জমিতে আখের আবাদ হয়েছে। ৩ হাজার ১৫০ জন চাষির উৎপাদিত ৭২ হাজার ২৫০ মেট্রিকটন আখ মাড়াইয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ থেকে চিনি উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৪৩৩৫ মে.টন এবং মিলে মাড়াই কার্যক্রম চলবে ৫৪ দিন।
আখ চাষ অব্যাহত রাখতে আখের মূল্য বৃদ্ধি সহ চাষিদের সবরকম সুযোগ সুবিধা দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন ঠাকুরগাঁও সুগারমিলের মহা-ব্যবস্থাপক (কৃষি) আবু রায়হান।
মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শাহজাহান কবির জানান, আখ সংকট ও ক্রমাগত লোকসানের কারণে ইতিমধ্যে রংপুর বিভাগের সবকটি মিল বন্ধ হয়ে গেছে। সরকার ঠাকুরগাঁও সুগার মিলটি সচল রেখেছে এবং এ মিলেই গত দুবছর ধরে ঠাকুরগাঁওসহ পঞ্চগড় ও সেতাবগঞ্জের আখ মাড়াই চলছে। মিলটি সচল রাখতে আখচাষীদের বেশি বেশি আখ রোপনের পাশাপাশি তিনি সকলের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন।
বিডি/ডেস্ক