দেবীগঞ্জে ভূল চিকিৎসায় জমজ শিশু মৃত্যুর অভিযোগ ডাঃ হাসনাত তানজিলার বিরুদ্ধে!

লেখক: সাইদুজ্জামান রেজা, পঞ্চগড় থেকে
প্রকাশ: ৯ মাস আগে

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে ভূল চিকিৎসায় নবজাতক শিশু মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে ডাঃ হাসনাত তানজিলা নামে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সোমবার (১৯ জুন) সিভিল সার্জন বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন দেবীগঞ্জ উপজেলার ভাউলাগঞ্জ তিস্তাপাড়া এলাকার সফিয়ার রহমানের ছেলে মনির হোসেন।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, প্রবাসীর স্ত্রী মোছা: তাসমিন আক্তার গর্ভবতী হওয়ায় তাকে চেকআপ করার জন্য গত বুধবার (১৪ জুন) দেবীগঞ্জের হিউম্যান ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়।সেখানে ডাঃ হাসনাত তানজিলা গর্ভবতীর চেকআপ করে আল্ট্রাসনোগ্রাম করার পরামর্শ দেন।পরে আল্ট্রাসনোগ্রাম করার পর ডাঃ হাসনাত তানজিলা জানান, পেটে একটি বাচ্চা রয়েছে এবং বাচ্চার পজিশন খুব ভালো আছে, কোনো সমস্যা নাই। তখন তিনি কিছু ঔষুধ (এইচপিসি ডিএস ৫০০এমজি নামের একটি ইনজেকশন) লিখে দেন এবং এই ইনজেকশনটি নিয়ে আনার পর তা পুশ করে দেন। এর কিছুক্ষণ পর থেকেই ওই নারীর রক্ত ও পানি ঝড়ে। পরে মুঠোফোনে ডাঃ হাসনাত তানজিলাকে বিষয়টি জানালে তিনি জানান, ঔষুধগুলো খাওয়ালে ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু রোগীর অবস্থা আরও অবনতি হওয়ায় গত শুক্রবার দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করালে কর্তব্যরত চিকিৎসক আল্ট্রাসনোগ্রাম করে বলেন, পেটে দুটি বাচ্চা রয়েছে এবং বাচ্চা দুটি পানি শূণ্যতার কারণে মারা গেছে। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। গর্ভবতী নারীর পরিবার দরিদ্র হওয়ায় নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সেভেন স্টার ক্লিনিকে নিয়ে গিয়ে নরমালে দুটি মৃত বাচ্চা প্রসব করানো হয়।
মনির হোসেন বলেন, হিউম্যান ক্লিনিকের মালিক রতন চন্দ্র ও আব্দুল কাদের অতিরিক্ত লাভের আশায় ভূয়া চিকিৎসক ডাঃ হাসনাত তানজিলাকে দিয়ে সাধারণ মানুষদের অপচিকিৎসা করাচ্ছে। ভাবীকে আল্ট্রাসনোগ্রাম না করেও ভুয়া রিপোর্ট দিয়ে অর্থ আত্মসাৎ করে এবং ভুল চিকিৎসা দিয়ে আমার ভাবীকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়। আমার ভাবীর পেটে দুটি সন্তানকে হত্যা করেছে ডাঃ তানজিলা। এসময় তিনি শিশু হত্যাকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলকব শাস্তির দাবী জানান।
এ বিষয়ে জানতে ডাঃ হাসনাত তানজিলার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
হিউম্যান ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সত্ত্বাধিকারী রতন চন্দ্র জানান, পেটে বাচ্চা ১ টা না দুইটা এটা ভূল হতে পারে। তবে ভূল চিকিৎসার বিষয়টি অন্য চিকিৎসক দ্বারা তদন্ত করলেই সঠিক তথ্য জানা যাবে।
ডেস্ক/বিডি/রেজা
  • জমজ শিশু
  • ডাঃ হাসনাত তানজিলা
  • ভূল চিকিৎসা
  • মৃত্যুর অভিযোগ
  •    

    কপি করলে খবর আছে