পীরগঞ্জে যৌতুকের মামলা করায় বউ-শাশুড়িকে মারপিট

লেখক: পীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি
প্রকাশ: ৪ মাস আগে

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে যৌতুকের মামলা করায় বউ ও শাশুড়িকে মারপিট করা সহ বাড়ি ঘর ভাংচুর, নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার দৌলতপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে মিতুর বাবা মামুনুর রশিদ বাদী হয়ে পীরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের মামুনুর রশিদের মেয়ে মোসদ্দেকা মিতুর সাথে গত ২৪ এপ্রিল ২০২২ তারিখে একই এলাকার শাহা আলমের ছেলে সাইদুল ইসলামের এর বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই মোসদ্দেকা মিতুর স্বামী সহ তার পরিবারের লোকজন যৌতুকের চাপ দেয়। যৌতুক না পেয়ে বিভিন্ন সময় মিতুর উপর শারীরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করতে থাকে সাইদুলের পরিবার।

উপায়ন্তর না পেয়ে মিতু যৌতুক নিরোধ আইনে গত ২৬ সেপ্টেম্বর আদালতে বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। এরপর থেকেই মামলা তুলে নিতে নানা ভাবে হুমকি দেওয়া হয় মিতু সহ তার পরিবারকে। মামলা তুলে না নেওয়ায় গত সোমবার দুপুরে মিতুর স্বামী সাইদুল, শ্বশুড় শাহ আলম, শাশুড়ি শহর বানু সহ তাদের কয়েকজন আত্মীয় স্বজন মিতুর বাড়িতে গিয়ে হামলা চালিয়ে বাড়ি ঘর ভাংচুর করে নগদ টাকা সহ স্বর্ণালংকার লুট করে। এ সময় সাইদুলের স্ত্রী মিতু ও তার শ্বাশুড়ি বিলকিস তাদের বাঁধা দিলে তাদেরকে মারপিট করে আহত করা হয়। গুরুতর আহতাবস্থায় তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মিতুর বাবা মামুনুর রশিদ জানান, জামাইয়ের বিরুদ্ধে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা দায়ের করেছে আমার মেয়ে। মামলা তুলে নিতে জামাইয়ের পরিবার থেকে বিভিন্ন রকম হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। মামলা তুলে না নেওয়ায় আমার বাড়িতে জামাই সহ তার বাবা মা এবং আত্মীয় স্বজনরা আমার মেয়ে ও স্ত্রীকে আহত করে বাড়ি ঘর ভাংচুর সহ নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে পালিয়ে গেছে।

এ বিষয়ে সাইদুরের মা শহর বানু জানান, আমরা কোন কিছু করিনি। আমাদেরকে ফাঁসানোর জন্য আমার ছেলের শ্বশুড় বাড়ির লোকজন বিভিন্ন রকম ষড়যন্ত্র করছে।

পীরগঞ্জ থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিডি/বিআর