ফেন্সিডিল উদ্ধার পরবর্তী অভিযানে আগ্নেয়াস্ত্র সহ আটক-২; পুলিশ সুপারের সংবাদ সম্মেলন

লেখক: নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: ১ বছর আগে

ঠাকুরগাঁওয়ে ১৩০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্বার পরবর্তী আটক আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে একটি ওয়ান শুটার বন্দুক ও তাজাগুলিসহ আরও দুইজন সহ মোট তিনজনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

সোমবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কনফারেন্স রুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, গত ৬ মে শনিবার ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ দুয়ারী (জিয়াবাড়ী) এলাকায় মো: সবুর হাসান ওরফে জুলুন (২৬) কে ১৩০ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক করা হয়। পরদিনই তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়। এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই (নিরস্ত্র) জহরুল ইসলাম বাদী হয়ে ঐ দিনই বালিয়াডাঙ্গী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে ঠাকুরগাঁও জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই (নিরস্ত্র) মো: নবিউল ইসলামকে নিযুক্ত করা হয়।

আরও পড়ুন : বালিয়াডাঙ্গীতে ফেন্সিডিল সহ নারী মাদক কারবারি আটক

পরবর্তীতে এ ঘটনার সাথে জড়িত ও আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে মর্মে তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বালিয়াডাঙ্গী থানার রতনদিঘী গ্রামের ইসরাইল ওরফে পানিপথের ছেলে লতিফ ওরফে ফুচকুন (২৬)কে আটক করেন এসআই নবিউল। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তার চাচাতো ভাই মো: রানা মিষ্টারের বাড়ির তোশকের নিচ থেকে চটের ব্যাগের ভিতরে রক্ষিত শপিং ব্যাগ দ্বারা পেচানো ট্রিগার, ফায়ারিং পিন ও ব্যারেল সংযুক্ত একটি সচল অগ্নেয়াস্ত্র ওয়ান শুটার গান এবং একটি তাজা গুলি উদ্ধার করেন তিনি। পরে এ ঘটনায় তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নবিউল ইসলাম বাদী হয়ে ৮ মে সোমবার বালিয়াডাঙ্গী থানায় অস্ত্র আইনে আরও একটি মামলা দায়ের করেন।

আজ সোমবার আটককৃত ২ জনকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়।

প্রেসব্রিফিংকালে ডিবির অফিসার ইনচার্জ মো: আনোয়ারুল ইসলাম, এসআই মো: নবিউল ইসলাম সহ ঠাকুরগাঁও জেলার বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

ডেস্ক/বিডি

  • আগ্নেয়াস্ত্র
  • পুলিশ সুপারের সংবাদ সম্মেলন
  • ফেন্সিডিল
  •    

    কপি করলে খবর আছে