রাণীশংকৈলের ৩ ইউপিতেই নৌকার জয়; পুলিশের গুলিতে প্রাণ গেল এক শিশুর !

লেখক: নিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশ: ৬ মাস আগে

ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে তিনটিতেই জয় পেয়েছে আ’লীগের প্রার্থীরা। উপজেলার ৫ নং বাচোর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচতি হয়েছেন জীতেন্দ্র নাথ বর্মন, তিনি পেয়েছেন ৮৭৬৪ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মোটরসাইকেল প্রতিকে আজিজুল ইসলাম পেয়েছেন ৮৩০৩ ভোট। ৮ নং নন্দুয়ার ইউনিয়নে নির্বাচিত হয়েছেন আব্দুল বারী, তিনি পেয়েছেন ৮২৬৬ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মোটরসাইকেল প্রতিকে জমিরুল ইসলাম পেয়েছেন ৪৫৪৭ ভোট এবং ৩নং হোসেনগাঁও ইউনিয়নে নির্বাচিত হয়েছেন মতিউর রহমান, তিনি পেয়েছেন ৪৩৯১ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মোটরসাইকেল প্রতিকে মো: নাসিরুদ্দিন পেয়েছেন ৪০৭৮ ভোট।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকতা নূর-ই-আলম।

এদিকে অসমাপ্ত তিনটি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বাচোর ইউনিয়নের ভাংবাড়ি ভি এফ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে ভোটের ফলাফলকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি থামাতে পুলিশের গুলিতে আশা নামে দেড় বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে।

বুধবার (২৭ জুলাই) ভোট গণনা শেষে ব্যালট বাক্সসহ অন্যান্য সরঞ্জাম পুলিশের গাড়িতে নিয়ে আসার সময় ভোট কেন্দ্রের ৩‘শ গজ দুরে কালুগাঁও মহেষপুর বেলবাজার নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আশা উপজেলার মিরডাঙ্গী গুচ্ছ গ্রাম বাজার এলাকার বাদশাহ মিয়ার মেয়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বাচোর ইউনিয়নের ভাংবাড়ি ভি এফ নিম্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে ভোট গণনা শেষে ভোটের ফলাফল নিয়ে মেম্বার প্রার্থী জলিল-ফয়জুল ইসলামের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া হয়। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে পুলিশ গুলি ছোড়ে। সে সময় শিশুটির মা দূর থেকে বিষয়টি দেখতে এগিয়ে গেলে মায়ের কোলে থাকা ১৮  মাসের  শিশু আশা গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান।

রানীশংকৈল উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির স্টিভ বলেন, পুলিশের গুলিতে একটি শিশু মারা গেছে। স্থানীয়রা ভোটের ফলাফল আনতে বাঁধা দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে পুলিশ গুলি ছুড়তে বাধ্য হয়। এ সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে।

বিডি/ডেস্ক