সেচ পাম্প চুরির হিড়িক পড়েছে বগুড়ার ধুনটে

লেখক: বাংলা ২৪ ভয়েস ডেস্ক
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কিছু দিন আগে ধারাবাহিকভাবে গরু চুরির ঘটনা ঠেকাতে জনতার সঙ্গে পুলিশের মতবিনিময় সভার পর এবার ফসলের মাঠ থেকে বৈদ্যুতিক সেচ পাম্প চুরির হিড়িক পড়েছে বগুড়ার ধুনট উপজেলায়।

এ ঘটনায় বুধবার (২৩ মার্চ) দুপুরের পর ক্ষতিগ্রস্থ তিন কৃষকের পক্ষে আমিনুল ইসলাম বাদি হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ধারাবাহিক চুরির ঘটনায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন এলাকার কৃষক পরিবারগুলো। উপজেলার নিমগাছি ইউনিয়ন এলাকায় এসব ঘটনা ঘটছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নিমগাছি ইউনিয়নের শিয়ালী গ্রামের রিপন মিয়া, আমিনুল ইসলাম ও বাবুল ইসলাম নামে তিন কৃষক বাড়ির অদূরের মাঠে বিদ্যুৎ চালিত সেচ পাম্প বসিয়ে চলতি মৌসুমে বোরো ধান ক্ষেতে পানি সেচ দেয়। অন্যান্য দিনের মতো মঙ্গলবার (২২ মার্চ) সন্ধ্যার পর জমিতে সেচ কাজ শেষে সেচ পাম্পের ঘরে তালা দিয়ে বন্ধ করে বাড়ি ফিরে কৃষকরা।

এ অবস্থায় রাতেরবেলা কে বা কারা ঘরের তালা ভেঙে একই কৌশলে ৩টি সেচ পাম্প চুরি করে নির্বিঘ্নে পালিয়ে যায়। এছাড়া খলিলুর রহমান নামে এক কৃষকের শ্যালো ইঞ্জিন (সেচ পাম্প) চুরির চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে দূর্বৃত্তরা। পরে বুধবার ভোরে ফসলের মাঠে গিয়ে সেচ পাম্প চুরির বিষয় টের পেয়েছেন কৃষকেরা। এতে ৩ কৃষকের প্রায় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

এর আগে নিমগাছি ইউনিয়নে ২০ দিনে ৫ কৃষকের গোয়াল ঘরের তালা ভেঙ্গে একই কৌশলে ১৫টি গরু ও ২টি ছাগল চুরি করেছে দূর্বৃত্তরা। তবে থানা পুলিশ এখনো পর্যন্ত চুরি যাওয়া কোন গরু উদ্ধার করতে পারেনি। এসব চুরি ঠেকাতে থানা পুলিশের আয়োজনে নিমগাছি ইউনিয়নের সোনাহাটা বাজার এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। তবে ওই রাতেই আবারো চুরির ঘটনায় কৃষকেরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকেরা জানান, বোরো চাষের এ মৌসুমে এভাবে সেচ পাম্প চুরি হওয়ায় সেচ কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এতে ভোগান্তির পাশাপাশি চাষাবাদ নিয়ে শঙ্কায় আছেন স্থানীয় কৃষকেরা। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দিয়েও কোন সুফল পাচ্ছেন না কৃষকেরা। পুলিশের নজরদারির অভাব আর রাত্রিকালীন টহল না থাকার কারণে চুরি ঠেকানো যাচ্ছে না বলে অনেকে অভিযোগ করেছেন।

নিমগাছি ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা ধুনট থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অমিত বিশ্বাস জানান, সেচ পাম্প চুরির বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে সেচ পাম্প জব্দসহ আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

ডেস্ক/বিডি